শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭
অধ্যক্ষকে চেনেন না শিক্ষার্থীরা!
নিজস্ব প্রতিবেদক, ৭১ সংবাদ ডট কম
Published : Thursday, 7 December, 2017 at 11:20 AM

অধ্যক্ষকে চেনেন না শিক্ষার্থীরা!রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার পুরান তাহিরপুর বিএম কারিগরি কলেজ থেকে এবার উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেছেন নান্টু ইসলাম। কিন্তু নান্টু তার কলেজের অধ্যক্ষকে চিনতেন না। গতকাল বুধবারই নান্টু প্রথম তার কলেজ অধ্যক্ষর মুখ দেখেছেন। অধ্যক্ষ রেজাউল ইসলামের কক্ষে তার সামনেই এমন কথা বললেন নান্টু।

ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রেজাউল ইসলাম অবশ্য এর প্রতিবাদ করলেন না। বললেন, এই কলেজ থেকে তিনি কোনো বেতন পান না। তাই অন্য একটি কলেজে শিক্ষকতা করেন। এজন্য এই কলেজে তার আসা হয় না।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, কলেজের একজন শিক্ষক ও একজন অফিস সহকারী ছাড়া তারা কাউকে চেনেন না।

দুর্গাপুরের প্রত্যন্ত এলাকার এই কলেজটি থেকে এবার ১৬ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন। ফল প্রকাশ হলে ১০ শিক্ষার্থীকে মার্কশিটে পাস দেখানো হলেও অনলাইনে দেখানো হয় ফেল। পরে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ তোলেন, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তাদের ফলাফল ঠিক করে দেয়ার জন্য দুই লাখ টাকা উৎকোচ নিয়েছেন।

শিক্ষার্থীদের এই সংবাদ সম্মেলনের খবর প্রকাশিত হলে পরদিনই তাদের অনলাইনেও পাস দেখানো হয়। শিক্ষাবোর্ডের এমন কাণ্ডে হইচই শুরু হয় বিভিন্ন মহলে। প্রশ্ন ওঠে কলেজটির শিক্ষকদের ভূমিকা নিয়েও।

এসব বিষয় তদন্ত করতে গতকাল বুধবার সকালে কলেজে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আনোয়ার সাদাত। সেখানে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদেরও ডাকা হয়। এ সময় ইউএনও, কলেজের শিক্ষক এবং সংবাদকর্মীদের সামনেই শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলেন শিক্ষার্থীরা। 

শিক্ষার্থীরা বলেছেন- তারা শুনেছেন, কলেজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষসহ শিক্ষকের সংখ্যা পাঁচজন। কিন্তু তারা শুধু একজন শিক্ষক ও অফিস সহকারীকে চেনেন। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকেও আগে কখনো দেখেননি। ইউএনওর আগমন উপলক্ষে বুধবারই প্রথম ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে তারা কলেজে দেখলেন।

অধ্যক্ষকে চেনেন না শিক্ষার্থীরা!

সুমাইয়া বলেন, কলেজের অফিস সহকারী সাহেব আলী আরেকটি স্কুলে চাকরি করেন। সেখানে গিয়ে তারা তাকে ফলাফল নিয়ে জটিলতার বিষয়টি জানান। ফলাফল ঠিক করতে ঢাকা যাওয়ার জন্য তারা অফিস সহকারীকে টাকাও দেন। 

এ বিষয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ্য রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘কলেজে মূল্যবান জিনিস রাখলে চুরি হয়ে যায়। তাই সেগুলো অফিস সহকারীর বাড়িতে রাখা হয়।’ তিনি জানান, খাতা-কলমে কলেজে একজন নৈশ্য প্রহরী আছেন। কিন্তু বেতন না হওয়ার কারণে তিনিও যান না। 

কলেজে ক্লাস না চলার অভিযোগ স্বীকার করেছেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। স্বীকার করেছেন শ্রেণিকক্ষ কোচিং সেন্টারকে ভাড়া দেয়ার বিষয়টিও। তবে তিনি দাবি করেছেন, পরিস্থিতির কারণেই এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠার ১৩ বছরেও কলেজটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষকরা বেতন-ভাতা পান না।

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস বলেন, প্রত্যন্ত এলাকায় হওয়ায় এ ধরনের কলেজের ব্যাপারে খোঁজখবর পাওয়া যায় না। তবে এবার তারা এই কলেজটির ব্যাপারে খোঁজখবর নেবেন।

৭১সংবাদ ডট কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


সর্বশেষ সংবাদ
ঠাকুরগাঁওয়ের ভেলাজানে সংঘর্ষে ১ জন নিহত আহত ১ জন
দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
বিএনপি-জামাতের ষড়যন্ত্র ঠেকাতে ছাত্রলীগই যথেষ্ট: জাকির হোসাইন
এসপি হলেন ৯৬ পুলিশ কর্মকর্তা
বেলুচিস্তানেও বাংলাদেশের ৭১-এর মতো ধর্ষণ করছে পাকিস্তানি সেনারা!
অ্যাশেজ: মালানের শতকে প্রথম দিনটি ইংল্যান্ডের
মধ্যপাড়া কঠিন শিলায় ৪৫ জন খনি শ্রমিক পুরস্কৃত
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দাবিতে বেরোবিতে নীলদলের মানববন্ধন
‘টি-টেন’ টুর্নামেন্টের সময়সূচি
জাল টাকার জলছাপ রসিদে মাহফিলের অনুদান আদায় হচ্ছে
ফেঁসে গেলেন মোস্তাফিজ
রাজা বাদশাহর বিয়েকে হার মানিয়েছে বিরুষ্কা!
হঠাৎ গ্রেফতার হলে করনীয়?
ডিএমপির নতুন গোয়েন্দা প্রধান দেবদাস
Chief Advisor: A K M Mozammel Houqe MP
Minister, Ministry of Liberation War Affairs, Government of the People's Republic Bangladesh.
Editor & Publisher: A H M Tarek Chowdhury
Sub-Editor: S N Yousuf
Chief Reporter: Nazmul Hasan Babu
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ৭১সংবাদ, ২০১৭
প্রধান কার্যালয় : ৫৩, মডার্ন ম্যানশন (১৪তলা), মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০
বার্তাকক্ষ : +৮৮-০২-৯৫৭৩১৭১, ০১৬৭৭-২১৯৮৮০, ০১৬২২-৩৩৩৭০৭, ০১৮৫৫-৫২৫৫৩৫, ই-মেইল :71sangbad@gmail.com, news71sangbad@gmail.com, Web : www.71sangbad.com